State Times Bangladesh

অ্যালোভেরার বিস্ময়কর যত গুণ

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৮:৩০, ১৮ মার্চ ২০২১

অ্যালোভেরার বিস্ময়কর যত গুণ

অ্যালোভেরা বা ঘৃতকুমারী

ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে অ্যালোভেরার যেমন বিকল্প নেই, তেমনি এই প্রাকৃতিক উপাদানটিকে কাজে লাগিয়ে অনেক রোগ প্রতিরোধ করা সম্ভব। প্রতিদিন অ্যালোভেরার রস বা জুস পান করলে ত্বক, চুল ও দেহকে পরিশুদ্ধ করে প্রাণবন্ত করে তোলে।

এতে রয়েছে ক্যালসিয়াম, সোডিয়াম, জিংক, আয়রন, পটাশিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ, জিঙ্ক, ফলিক অ্যাসিড, অ্যামিনো অ্যাসিড ও ভিটামিন-এ, বি৬ ও বি২ ইত্যাদি, যা স্বাস্থ্যরক্ষার বিভিন্ন কাজে লাগে।

আসুন তাহলে জেনে নিন অ্যালোভেরার আরো  গুনাগুণ সম্পর্কে-

চাপ ও রোগ প্রতিরোধ: ঘৃতকুমারী দারুণ অ্যাডাপ্টোজেন। শরীরের প্রাকৃতিক ক্ষমতাকে বাড়িয়ে বাহ্যিক নানা চাপ ও রোগ প্রতিরোধে সহায়ক ভূমিকা পালনকারী উপাদানকে অ্যাডাপ্টোজেন বলা হয়ে থাকে। ঘৃতকুমারী দেহের অভ্যন্তরীণ পদ্ধতির সঙ্গে মিশে গিয়ে প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে আরও সক্রিয় করে তোলে এবং দেহের ভারসাম্য রক্ষা করে। শারীরিক ও মানসিক চাপ মোকাবিলার পাশাপাশি পরিবেশগত দূষণের ক্ষতিকর প্রভাব থেকে দেহকে সুরক্ষা দিতে পারে ঘৃতকুমারী।

হজম শক্তি বাড়ায়ঃ হজম শক্তি বাড়াতে অ্যালোভেরার বেশ কার্যকরী। এর অ্যান্টি-ইনফ্লামেটরি উপাদান পাকস্থলী ঠান্ডা রাখে এবং গ্যাসের সমস্যা দূর করে।

ডায়াবেটিস দূরঃ যারা ডায়াবেটিসের সমস্যায় ভুগছেন তারা নিয়মিত অ্যালোভেরা রস খেলে রক্তের গ্লুকোজের পরিমাণ কমিয়ে আনতে এবং ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারবেন।

চুলের যত্নেঃ চুলের শুষ্ক ভাব এবং ত্বকে চুলকানি দূর করার জন্য অ্যালোভেরা জেল ব্যবহার করতে পারেন। এর অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টিফাঙ্গাল উপাদান চুল পড়া ও খুশকির সমস্যা দূর করে। পাশাপাশি চুলের উজ্জ্বলতাও বেড়ে যাবে।

ত্বকের যত্নেঃ ত্বকে র‌্যাশ,  চুলকানি, রোদে পড়া দাগ দূর করতে অ্যালোভেরার তুলনা হয় না। এর তৈরি জেল ব্যবহারে ত্বক উজ্জ্বল ও মসৃণ হয়।  

 ঠোঁটে লাবণ্য: এমনকি ঠোঁটের সৌন্দর্য বাড়াতে ও শীতের যত্নে অ্যালোভেরা ব্যবহার করা যেতে পারে। এতে ঠোঁটের শুষ্কতা কমে, ঠোঁট ফাটার সমস্যা দূর হয়। তাই, প্রতিদিন ঠোঁটে সামান্য পরিমাণে অ্যালোভেরা ব্যবহার করা যেতে পারে।

ওজন কমাতেঃ ওজন কমাতে অ্যালোভেরার জুস অনেক বেশ কার্যকরী। অ্যালোভেরা জুসের অ্যান্টি-ইনফ্লামেটরি উপাদান শরীরের জমে থাকা মেদ দূর করে এবং কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়াই ওজন কমাতে সাহায্য করে।

হার্ট  দাঁতের যত্নেঃ অ্যালোভেরার জুস কোলেস্টেরলের মাত্রা কমিয়ে রাখে। এটি দূষিত রক্ত দেহ থেকে বের করে দেয় এবং হৃদযন্ত্রকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে থাকে। এছাড়াও অ্যালোভেরা জুস দাঁত এবং মাড়ির ব্যথা ও ইনফেকশন নিবারণে সহায়তা করে।

প্রদাহ ও ব্যথা কমায়: শরীরে নানা ধরনের প্রদাহ দূর করতে খুবই কার্যকর ঘৃতকুমারী। এতে বি-সিসটারোল সহ এমন ১২টি উপাদান আছে যা প্রদাহ তৈরি হওয়া ঠেকায় এবং প্রদাহ হয়ে গেলে তা কমিয়ে আনে। ঘৃতকুমারীর এই সব গুণ হাত-পায়ের জোড়ার জড়তা দূর করে এবং গিঁটের ব্যথা কমাতেও সহায়তা করে।

সম্পর্কিত বিষয়: