State Times Bangladesh

লোকসভার ওয়েবসাইটে নুসরত ‘বিবাহিত’

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ২০:২৫, ৯ জুন ২০২১

লোকসভার ওয়েবসাইটে নুসরত ‘বিবাহিত’

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বসিরহাটের তৃণমূল সংসদ সদস্য ও অভিনেত্রী নুসরত জাহান আজ বুধবার দুপুরে বলেন, ‘নিখিলের সঙ্গে আমি লিভ টুগেদার করেছি। বিয়ে নয়। ফলে বিবাহবিচ্ছেদের প্রশ্নই ওঠে না।’ এ খবর প্রকাশের পরই হইচই শুরু হয়ে যায়।

কিন্তু পরে দেখা যায়, নিখিলের সঙ্গে  লিভ টুগেদার করেছেন বলে নুসরত দাবি করলেও সরকারি নথিতে তিনি বিবাহিতা এবং স্বামীর নাম নিখিল জৈন। লোকসভার ওয়েবসাইটে পশ্চিমবঙ্গ থেকে জয়ী তৃণমূল সংসদ সদস্যের যে তালিকা সেখানে নুসরতের নামে ক্লিক করলেই দেখা যাচ্ছে যাবতীয় তথ্য। সেখানে স্পষ্ট লেখা, নুসরত বিবাহিত। তিনি বিয়ে করেছেন ২০১৯ সালের ১৯ জুন। স্বামীর নাম নিখিল জৈন।

আনন্দবাজার জানায়, নুসরাত মা হতে চলেছেন বলে সম্প্রতি জানা যায়। অনাগত সন্তানের পিতৃপরিচয় কী তা নিয়ে গত পাঁচ দিন ধরে বিতর্ক তুঙ্গে। শুধু তাই নয়, নিখিলের সঙ্গে তার বিবাহবিচ্ছেদ হচ্ছে না কেন, এই নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে চার দিক থেকে।

এর আগে খুব কম অতিথি নিয়েই তুরস্কে বিয়ে হয়েছিল নুসরত ও নিখিলের। সেই প্রসঙ্গ টেনে নুসরত জানিয়েছেন, তুরস্কের বিয়ে আইন অনুসারে ওই অনুষ্ঠান অবৈধ। উপরন্তু হিন্দু-মুসলিম বিবাহের ক্ষেত্রে বিশেষ বিবাহ আইন অনুসারে বিয়ে করা উচিত, যা এ ক্ষেত্রে মানা হয়নি। ফলত, এটা বিয়েই নয়।

বুধবার এমনই যুক্তি প্রকাশ্যে এনেছেন অভিনেত্রী সংসদ সদস্য। তার দাবি অনুযায়ী, যে বিয়ে আইনত সিদ্ধ নয়, তার জন্য বিয়ে বিচ্ছেদের প্রয়োজন নেই।

তাহলে সংসদে নিজেকে বিবাহিত হিসেবে পরিচয় জানিয়েছেন কেন? এবার উঠবে সেই প্রশ্ন। কারণ, নিয়ম অনুযায়ী সংসদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতেই ওয়েবসাইটে পরিচয় দেওয়া হয়। তবে গত লোকসভা ভোটের আগে লোকসভা নির্বাচনকে যে হলফনামা দিয়েছিলে নুসরত তাতে অবিবাহিতই দাবি করেছিলেন নিজেকে। কারণ, তার বিয়ের যে তারিখ লোকসভার ওয়েবসাইটে রয়েছে, তা নির্বাচনের পরের।

সম্পর্কিত বিষয়: