State Times Bangladesh

উপাচার্যের অনিয়ম তদন্ত শুরু রোববার, রাবিতে যেতে পারে কমিটি

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৬:০০, ৭ মে ২০২১

আপডেট: ১৬:০৪, ৭ মে ২০২১

উপাচার্যের অনিয়ম তদন্ত শুরু রোববার, রাবিতে যেতে পারে কমিটি

বৃহস্পতিবার রাজশাহীতে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালায় চাকরিপ্রত্যাশী মহানগর ছাত্রলীগ

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) বিদায়ী উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহানের দ্বিতীয় মেয়াদের শেষ দিনে বৃহস্পতিবার ১৪১ জনকে অ্যাডহকে নিয়োগ দেওয়ার অভিযোগ তদন্ত আগামী রোববার থেকে শুরু হবে।

আরও পড়ুন-উপাচার্যের শেষ দিনে গণহারে নিয়োগ অবৈধ : শিক্ষা মন্ত্রণালয়

অভিযোগ তদন্তে গঠিত কমিটির প্রধান বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) সদস্য অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আলমগীর শুক্রবার গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।

তিনি আরও জানান, তদন্তে জন্য কমিটি ঈদের আগেই রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে যেতে পারে।

অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহানের রাবি উপাচার্য হিসেবে তার দ্বিতীয় মেয়াদের শেষ কর্মদিবসে বৃহস্পতিবার ১৪১ জনকে অ্যাডহকে নিয়োগ দিয়ে ক্যাম্পাস ছাড়েন। নিয়োগপ্রাপ্ত অধিকাংশই ছাত্রলীগের নেতাকর্মী।

এ নিয়োগ নিয়ে বৃহস্পতিবার ক্যাম্পাসে হুলস্থুল কাণ্ড ঘটে যায়। বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ ও কর্মচারীদের সঙ্গে সংঘর্ষ হয় মহানগর ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের। 

আরও পড়ুন-‘গোপন নথি’ চুরির অভিযোগ, উপাচার্যের জামাতার জিডি

বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিষদ শাখার সহকারী রেজিস্ট্রার মামুনুর রশীদ জানান, ৯ জন শিক্ষক, উচ্চমান ও নিম্নমান সহকারী পদে ৮৫ জন, অফিসার পদে ২৩ জন এবং সহায়ক কর্মচারী পদে ২৪ জন নিয়োগ পেয়েছেন।

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ঘটনা তদন্তে চার সদস্যের কমিটি গঠন করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। মেয়াদের শেষ দিনে বৃহস্পতিবার জনবল নিয়োগ দেওয়ার অভিযোগে অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহানের বিরুদ্ধে এ তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

কমিটির প্রধান করা হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) সদস্য অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আলমগীরকে।

বাকি সদস্যরা হলেন- ইউজিসি সদস্য অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের যুগ্ম সচিব ড. মো. জাকির হোসেন আখন্দ এবং ইউজিসির পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় শাখার পরিচালক জামিনুর রহমান।

কমিটিকে সাত কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। আগামী রোববার প্রথম কর্মদিবস শুরু। এই কমিটি অবৈধ নিয়োগ ও অনিয়মের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সুপারিশ করবে।

কমিটি গঠনের আদেশে বলা হয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বিদায়ী উপাচার্য আবদুস সোবহানের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের বিষয়ে ইতিমধ্যেই ইউজিসি তদন্ত করেছে। তদন্ত প্রতিবেদনে উপাচার্যের বিরুদ্ধে নিয়োগ কার্যক্রমসহ আনা অভিযোগ প্রাথমিকভাবে প্রমাণিতও হয়।

এরপর শিক্ষা মন্ত্রণালয় গত বছরের ১০ ডিসেম্বর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সব ধরনের নিয়োগ কার্যক্রম পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত স্থগিত রাখতে উপাচার্যকে অনুরোধ করেছিল।

কিন্তু তা উপেক্ষা করে উপাচার্য তাঁর মেয়াদের শেষ কর্মদিবসে বিভিন্ন পদে অবৈধ ও বিধিবহির্ভূতভাবে জনবল নিয়োগ করেছেন বলে মন্ত্রণালয় জানতে পেরেছে।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, উপাচার্য তাঁর শেষ কর্মদিবসে বিভিন্ন পদে ১৪১ জনকে অস্থায়ী ভিত্তিতে (এডহক) ভিত্তিতে নিয়োগ দিয়েছেন। এ নিয়ে গতকাল সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটে।