State Times Bangladesh

সাতক্ষীরায় শনাক্তের হার ৫০ শতাংশের ওপরে

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৯:৪৬, ১০ জুন ২০২১

আপডেট: ১৯:৪৭, ১০ জুন ২০২১

সাতক্ষীরায় শনাক্তের হার ৫০ শতাংশের ওপরে

সাতক্ষীরায় চলমান বিধিনিষেধের মধ্যেও করোনা শনাক্তের হার ৫০ শতাংশের ওপরে আছে। গত ১০ দিনে সীমান্তবর্তী এ জেলায় পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হারের গড় ৫১ দশমিক ২৬ শতাংশ।

বুধবার সকাল ৮টা থেকে আজ বৃহস্পতিবার ৯৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৪৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৫০ দশমিক ৫২ শতাংশ। এই সময়ে মারা যাওয়া পাঁচ জনসহ করোনায় মোট মারা গেছেন ৪৯ জন।

জানা গেছে, ঈদের আগে সাতক্ষীরায় করোনা শনাক্তের হার ছিল ১৩ শতাংশের আশপাশে। ঈদের পরই এটা বেড়ে হয় ২১ শতাংশ। মে মাসের শেষ সপ্তাহে শনাক্তের হার বেড়ে ৪১ শতাংশ হয়। আর, ১ জুন থেকে ১০ জুন পর্যন্ত ১০ দিনে ১ হাজার ২৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৫২৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়। গড় শনাক্তের হার ৫১ দশমিক ২৬ শতাংশ।

এর আগের ২৪ ঘণ্টায় ১৮২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১০৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়। শনাক্তের হার ৫৯ দশমিক ৩৪ শতাংশ।

সাতক্ষীরা জেলায় এ পর্যন্ত ২ হাজার ১৪৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

জেলা সিভিল সার্জন ডা. হুসাইন সাফায়াত জানান, ১০০ শয্যার সাতক্ষীরা সদর হাসপাতাল করোনা বিশেষায়িত হাসপাতালে পরিণত করার কাজ চলছে।

করোনা সংক্রমণের হার না কমায় সাতক্ষীরা জেলায় আরও এক সপ্তাহের জন্য লকডাউন বাড়ানো হয়েছে।

আগামী ১৮ জুন রাত ১২টা পর্যন্ত দ্বিতীয় দফার লকডাউন চলবে। গতকাল বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টায় জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সাতক্ষীরায় করোনা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় গত ৫ জুন থেকে ১১ জুন পর্যন্ত এক সপ্তাহের লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছিল।

জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামাল বলেন, ‘কিন্তু, মানুষ সচেতন না হওয়ায় করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হয়নি। বরং খারাপের দিকে যাচ্ছে। করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভায় সব দিক থেকে বিবেচনা করে আগামী ১২-১৮ জুন পর্যন্ত সাত দিন লকডাউন বাড়ানো হয়েছে।’

মানুষকে লকডাউন মেনে চলতে বাধ্য করতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

সম্পর্কিত বিষয়: