State Times Bangladesh

সৌদিতে কোয়ারেন্টিন খরচে ভর্তুকি দিচ্ছে সরকারি, যেভাবে আবেদন করবেন

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৮:৩৬, ৬ জুন ২০২১

সৌদিতে কোয়ারেন্টিন খরচে ভর্তুকি দিচ্ছে সরকারি, যেভাবে আবেদন করবেন

সৌদিগামী প্রবাসী কর্মীদের হোটেলে কোয়ারেন্টিন খরচের সরকারি ভর্তুকির ২৫ হাজার টাকা প্রবাসী কর্মী বা তাদের মনোনীত প্রতিনিধির ব্যাংক অ্যাকাউন্টে পাঠানো হবে। আগামীকাল সোমবার থেকে আবেদনপত্র জমা দেওয়া যাবে বলে জানিয়েছে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়।

আজ রোববার প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় থেকে এসব তথ্য জানানো হয়।

মন্ত্রণালয় জানায়, সৌদি আরবে কোয়ারেন্টিন খরচের ওপর ভর্তুকি দেবে সরকার। মহামারি কোভিড-১৯ বিস্তার রোধকল্পে সৌদি আরব সরকারের জারি করা  নির্দেশনা অনুযায়ী, ২০ মে থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত যেসব সৌদি প্রবাসী বাংলাদেশী কর্মী নিজের খরচে বাধ্যতামূলক প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন পালন করেছেন বা করবেন, তাদেরকে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড থেকে কর্মীপ্রতি ২৫ হাজার টাকা করে ভর্তুকি প্রদান করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এই ভর্তুকি সংশ্লিষ্ট কর্মী বা তার মনোনীত প্রতিনিধির ব্যাংক অ্যাকাউন্টে পাঠানো হবে।

আবেদন প্রক্রিয়া

সংশ্লিষ্ট কর্মীদের প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট www.probashi.gov.bd, অথবা ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের ওয়েবসাইট www.wewb.gov.bd, অথবা জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর ওয়েবসাইট www.bmet.gov.bd থেকে আবেদনপত্র ডাউনলোড করে, কিংবা দেশের ৩টি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবস্থিত প্রবাসী কল্যাণ ডেস্ক থেকে সংগ্রহ করে তা জমা দিতে বলা হয়েছে।

এছাড়া সৌদি আরব প্রবাসী যেসব কর্মী ইতোমধ্যে সৌদি আরব চলে গেছেন এবং নিজ ব্যয়ে কোয়ারেন্টিন সম্পন্ন করেছেন, বা করছেন তাদেরকে একই নিয়মে সংশ্লিষ্ট আবেদনপত্র পূরণপূর্বক ৩০ জুনের মধ্যে সৌদি আরবে বাংলাদেশ দূতাবাস, রিয়াদ অথবা বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল, জেদ্দায় ডাকের মাধ্যমে জমা করতে হবে।

প্রয়োজনীয় কাগজ

কাগজপত্রসহ আগামী ৭ জুন থেকে ফ্লাইটের দিন বহির্গমনের আগে বিমানবন্দরে প্রবাসী কল্যাণ ডেস্কে আবেদনপত্র জমা দিতে বলা হয়েছে। এ জন্য লাগবে

১. জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো (বিএমইটি) কর্তৃক প্রদত্ত স্মার্টকার্ড বা ইমিগ্রেশন ক্লিয়ারেন্স কার্ডের ফটোকপি।

২. পাসপোর্টের প্রথম চার পৃষ্ঠার ফটোকপি।

৩. পাসপোর্টের সঙ্গে সংযুক্ত ভিসার ফটোকপি।

৪. টিকিটের ফটোকপি।

৫. হোটেল বুকিংয়ের ডকুমেন্টের  ফটোকপি।

সম্পর্কিত বিষয়: