State Times Bangladesh

মালয়েশিয়ায় ভিসা নবায়ন স্থগিত, বিপাকে লাখ লাখ প্রবাসী

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৯:০২, ৫ জুন ২০২১

মালয়েশিয়ায় ভিসা নবায়ন স্থগিত, বিপাকে লাখ লাখ প্রবাসী

মালয়েশিয়ার মানবসম্পদ মন্ত্রী দাতুক সেরি এম সারাভানান

মালয়েশিয়ায় বৈধভাবে বসবাসরত অভিবাসী কর্মীদের বার্ষিক ভিসা নবায়ন বা লেভি প্রদান কার্যক্রম আগামী ২০২২ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত স্থগিত করেছে দেশটির সরকার।

এতে দেশটিতে কর্মরত বিভিন্ন সেক্টরের কয়েক লাখ প্রবাসী কর্মী অবৈধ হয়ে পড়বে বলে মন্তব্য করেছেন অভিবাসন খাত বিশ্লেষকরা।

আজ শনিবার মানবসম্পদমন্ত্রী এম সারাভানান এক বিবৃতিতে বলেন, বিদেশি কর্মীদের ভিসার নবায়নে লেভি বা নতুন শুল্ক পরিশোধ ব্যবস্থাটি আগামী বছরের জানুয়ারি পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে। পরবর্তীতে কর্মসংস্থান শিল্পের বিভিন্ন খাতে সঠিক চাহিদার ভিত্তিতে বিদেশি কর্মীদের নিয়োগ দেয়া হবে। গত বুধবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয় বলে জানান এম সারাভানান।

তিনি বলেন, এর আগে চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে জুলাই পর্যন্ত লেভি (শুল্ক) কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছিল। দীর্ঘ সময় ধরে চলা করোনা মহামারির কারণে স্বাস্থ্য ও অর্থনৈতিক খাতে নেতিবাচক প্রভাবের ফলে এটাকে প্রতিরোধ করার জন্য এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এছাড়াও এই মাল্টি টায়ার সিস্টেমের মাধ্যমে মালয়েশিয়ায় বিদেশি কর্মীদের নির্ভরতা কমিয়ে দেশীয় জনশক্তি ব্যবহারের পথ সুগম করতে এ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে জানান মন্ত্রী।

এম সারাভানান আরও বলেন, করোনার কারণে অর্থনৈতিক মন্দায় পড়ে দেশটির অসংখ্য নাগরিক তাদের চাকরি হারিয়ে বেকার হয়ে গেছেন। তাদেরকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে নিয়োগ দেয়া হবে। এরপর চাহিদার ভিত্তিতে বিদেশিদের পুনরায় নিয়োগ দেয়া হবে। পাশাপাশি নিয়োগকর্তাদের বিদেশি কর্মী নিয়োগের কোটা পদ্ধতির স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা হবে। শ্রমশক্তির নতুন কর্মী নিয়োগের ব্যাপারে পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালে যেসব কর্মী রি-হায়ারিংয়ের মাধ্যমে বৈধ হয়েছেন তারা অভিযোগ করেছেন পাঁচ বছরে ৫ম বার লেভি (শুল্ক) পরিশোধ করে ভিসা নবায়ন করা হলেও এখন দেশটির ইমিগ্রেশন বিভাগ ষষ্ঠবারের মতো লেভী জমা না নিয়ে তাদের পাসপোর্ট ফিরিয়ে দিচ্ছে। অথচ এই প্রক্রিয়ায় একজন সুস্থ কর্মী ১০ বার অথবা ১০ বছর পর্যন্ত প্রতি বছর লেভী পরিশোধ করে কাজ করার নিয়ম ছিল।

সম্পর্কিত বিষয়: