State Times Bangladesh

‘ব্রিটেনে এবার আরও বেশি বিপদে বাংলাদেশিরা’

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৭:০১, ১ মে ২০২১

আপডেট: ১৭:১৫, ১ মে ২০২১

‘ব্রিটেনে এবার আরও বেশি বিপদে বাংলাদেশিরা’

প্রতীকী ছবি

প্রথম ঢেউয়ের তুলনায় করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে ব্রিটেনে বসবাসরত বাংলাদেশিদের বিপদ আরও বেড়েছে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন স্বাস্থ্যবিষয়ক গবেষণা সাময়িকী দ্য ল্যানসেট।

ল্যানসেটের বিশ্লেষণে দক্ষিণ এশিয়ার ভারত এবং পাকিস্তানের ক্ষেত্রেও একই কথা বলা হয়েছে।

১৭ মিলিয়ন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষকে নিয়ে করা এই গবেষণায় দেখা গেছে, অন্য সংখ্যালঘু প্রবাসীদের তুলনায় দক্ষিণ এশিয়ার তিনটি দেশের মানুষ বেশি করোনায় সংক্রমিত হচ্ছেন, হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন, মারা যাচ্ছেন।

প্রথম ঢেউয়ে কৃষ্ণাঙ্গদের নিয়ে অনেক কথা হয়েছিল। দ্বিতীয় ঢেউয়ে সেই তাদের সংক্রমিত হওয়ার হার শ্বেতাঙ্গদের প্রায় কাছাকাছি।

কিন্তু ভারত, পাকিস্তান এবং বাংলাদেশিদের ক্ষেত্রে চিত্রটা আলাদা।

লন্ডনের সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. রোহিনি মাথুর বিবিসিকে বলেছেন, ‘দক্ষিণ এশিয়ানদের এটি চিন্তার বিষয়। প্রতিরোধের জরুরি পদক্ষেপ নেয়া উচিত।’

বিবিসি লিখেছে, দ্বিতীয় ঢেউয়ে ডেটা সংগ্রহ করে বিজ্ঞানীরা প্রথম ঢেউয়ের সঙ্গে তুলনা করেছেন।

এশিয়ার মানুষেরা কেন বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন তা নিয়ে ব্রিটেনে নানা আলোচনা হয়েছে গত বছর। অনেক বিজ্ঞানী বলেছেন, দক্ষিণ এশিয়ার মানুষেরা একই ঘরে সংখ্যায় বেশি বসবাস করেন। তারা যে ধরনের কাজ করেন, সেগুলো থেকে সংক্রমিত হওয়ার ঝুঁকি বেশি।

কিছু বিজ্ঞানী আবার দেহের বর্ণের কথাও উল্লেখ করেন।

তবে বাংলাদেশিদের দাবি, ব্রিটিশ সরকারের থেকে অন্যদের তুলনায় তারা কম সুযোগ-সুবিধা পান। যা তাদের জীবনযাত্রার মানকে প্রভাবিত করে। এতে তাদের সংক্রমিত হওয়ার ঝুঁকি বেশি।

আবার আক্রান্ত হলে সবাই দ্রুত চিকিৎসা করাতে পারেন না, এতে পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়।